২০২০ সালে ফিতরা কত টাকা?

প্রতি বছর রমাদানের শেষে আমরা যাকাতুল ফিতর প্রদান করে থাকি। যেহেতু এটি বছরে একবার আদায় করে থাকি তাই এর বিধি-বিধান ও মাসআলাগুলো স্বাভাবিক ভাবেই আমরা ভুলে যাই। প্রতি বছরই নতুন করে ফিতরার মাসয়ালাগুলোর খোঁজ করতে হয়। সাদাকাতুল ফিতরের সাথে বা এর মূল্যমানের সাথে ৫ টি পণ্য জড়িত। প্রতি বছর তাই বাজার মূল্যের উপর ভিত্তি করে ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে ফিতরার পরিমাণ নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। ২০২০ সালের রমজান মাসেও ইসলামিক ফাউন্ডেশন ২০২০ সালের ফিতরার জন্য কত টাকা প্রদান করতে হবে সে নির্দেশনা দিয়েছে।

শুরুতেই ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নির্দেশনা অনুযায়ী ২০২০ সাল তথা ১৪৪১ হিজরির রমাদান মাসের ফিতরার পরিমাণ নিয়ে আলোচনা করা হলো। এরপর ফিতরা বিষয়ক বিস্তারিত আলোকপাত করা হবে ইনশাআল্লাহ।

২০২০ সালে ফিতরা কত টাকা?

ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে ২০২০ সালের রামাদান মাসের যাকাতুল ফিতর এর পরিমাণ নির্ধারন করে দেয়া হয়েছে। এ বছর জনপ্রতি ফিতরা আদায়ের জন্য সর্বোচ্চ পরিমান ২২০০ টাকা ও সর্বনিম্ন পরিমান ৭০ টাকা।

কেন এই তারতম্য হয়? এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে এই আর্টেকেলের পরবর্তী অংশে। পুরোটা পড়লে ইনশাআল্লাহ এ বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা পাওয়া যাবে।

ইসলামে শরীয়তে ফিতরা দেয়ার জন্য ৫ টি খাদ্যদ্রব্যের উল্লেখ রয়েছে। যে কোনো একটি পণ্য দিয়ে, অথবা আমাদের আর্থিক সামর্থ্য অনুযায়ী যে কোনো পণ্যের মূল্য প্রদান করলেও ইনশাআল্লাহ ফিতরা আদায় হয়ে যাবে। হাদীস শরীফ থেকে প্রাপ্ত এই পণ্যগুলোর বাজারমূল্য অনুযায়ী এ বছরের ফিতরার মূল্য নিচে তুলে ধরা হলোঃ

  1. আটা/গম – ৭০ টাকা
  2. যব – ২৭০ টাকা
  3. কিসমিস – ১৫০০ টাকা
  4. খেজুর – ১৬৫০ টাকা
  5. পনির – ২২০০ টাকা

চলুন দেখে নিই কোন পণ্য দিয়ে ফিতরা আদায়ের জন্য কত মূল্য পরিশোধ করতে হবে।

1. আটা বা গম – ৭০ টাকা

আটা বা গম দিয়ে আদায় করলে অর্ধ সা তথা ১ কেজি ৬৫০ গ্রাম আটা/গম ফিতরা হিসাবে দিতে হবে। এর মূল্য দিতে চাইলে বাজার দর অনুযায়ী আসে ৭০ টাকা।

2. যব – ২৭০ টাকা

যব দিয়ে আদায় করলে ১ সা তথা ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম প্রদান করতে হবে। যার বাজারমূল্য ২৭০ টাকা।

3. কিসমিস – ১৫০০ টাকা

কিসমিস দিয়ে আদায় করলে ১ সা তথা ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম প্রদান করতে হবে। যার বাজারমূল্য ১৫০০ টাকা।

4. খেজুর – ১৬৫০ টাকা

খেজুর দিয়ে আদায় করলে ১ সা তথা ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম প্রদান করতে হবে। যার বাজারমূল্য ১৬৫০ টাকা।

5. পনির – ২২০০ টাকা

পনির দিয়ে আদায় করলে ১ সা তথা ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম প্রদান করতে হবে। যার বাজারমূল্য ২২০০ টাকা।

Leave a comment

Send a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *